ঢাকাশুক্রবার , ২৭ মার্চ ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নবীগঞ্জে বিক্রি হচ্ছে নিম্নমানের মাস্ক

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
মার্চ ২৭, ২০২০ ৫:০৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শাহরিয়ার আহমেদ শাওনঃ   নবীগঞ্জ বাজারে নিম্ন মাস্ক বিক্রি করা হচ্ছে।এতে ভাইরাসের মতো কোন ব্যাকটেরিয়া থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব নয়।যে সব মাস্ক বিক্রি হচ্ছে এতে কোন কাজের কাজেই হবে না। নবীগঞ্জ বাজারে ফুটপাতে অনেক ব্যবসায়ী বিভিন্ন ধরনের মাস্ক বিক্রি করতে দেখা গেছে।যা অস্বাস্থ্যকর আর নিম্নমানের যে সেইফটির  জন্য কোন কাজেই আসবে না। সরেজমিনে বাাজারে গিয়ে দেখা যায়,প্যাকেটবিহীন ভাবে কাপড়ের তৈরী মাস্ক বিক্রি করছে ২০ টাকা থেকে ৫০ টাকায়। রাস্তার পাশে দোকান নিয়ে বসে থাকার ফলে রাস্তার ধুলোবালি মাস্কে গিয়ে পড়ছে।আর এই মাস্ক মুখে দিয়ে আরও অসুখ ডেকে আনা হচ্ছে। আবার ভ্যান গাড়ীর মধ্যে ২/৩ ধরনের মাস্ক বিক্রি করতে দেখা গেছে।
সেখানে মাস্ক প্যাকেটিং করা দেখা গেলেও সেগুলো কাপড়ের তৈরি নকল মাস্ক। এসব মাস্ক গুলোতে নকল ফিল্ডারের ডিজাইন করে দেওয়া হয়েছে।নকল ফিল্ডার দিয়ে আকর্ষন বাড়িয়ে জন সাধারনের কাছে বিক্রি করা হচ্ছে। করোনা ভাইরাস সংক্রামন ঠেকাতে মাস্ক ব্যবহারের সচেতনতা বৃদ্ধি করছে সরকার। কিন্ত এসব নিম্নমানের নকল মাস্ক ব্যবহার করে কতটুক উন্নতি করা যায় সেটা ভাবার বিষয়।
সুরক্ষিত যে মাস্ক পড়া প্রয়োজন সার্জিকাল মাস্ক সে গুলো বাজারে শেষ হয়েগেছে অনেক আগেই।তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে ফার্মেসী ও বিপনীতে গিয়ে জানাযায়,সার্জিকেল মাস্ক গুলা শেষ হয়ে গেছে আরো আগেই।নতুন করে কোন সাপ্লাই আপাদত নাই ।
এই নিম্নমানের মাস্ক যতটা ধুলোবালি ঠেকাতে পারবে সেখানে কোন করোনা ভাইরাসের মতো কোন ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া ঠেকাতে পারবে না।
পুলিশ প্রশাসন এক প্রকার বাধ্য বাধ্যকতা মাস্ক মুখে লাগাতে বলা হলেও এসব নকল মাস্ক পড়ে কোন উপকার পাওয়া সম্ভব নয় বিশেষজ্ঞদের মতে।
ভ্যান গাড়ী থেকে নাজমুল মিয়া মাস্ক কিনতে আসলে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ কে জানান, সবাই মাস্ক পড়ছে।মাস্ক ছাড়া ঘর থেকে বেড় হওয়া যায়না তাই মাস্ক কিনতে আসছি।এখন প্রায় সকলেই মাস্ক কিনছেন।তবে কতটুক ভাল স্বাস্থ্য সম্মত মাস্ক কিনছেন কিনা সেটা বুঝে শুনে ক্রয় করাটা জরুরী বলেও জানান তিনি।

Developed By The IT-Zone