ঢাকাশুক্রবার , ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবন সংগ্রামে হার না মানা যোদ্ধা আব্দুর রহমান

রায়হান আহমেদ,চুনারুঘাট
ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২২ ৮:২৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জীবন সংগ্রামে হার না মানা যোদ্ধা আব্দুর রহমান বৃদ্ধ হলেও তাঁর ভাগ্যে এখনো জুটেনি বয়স্ক ভাতা। এ বয়সে সমাজের অন্যরা ভিক্ষাবৃত্তি করলেও তিনি পায়ে হেঁটে এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় বিক্রি করেন ‘হাওয়াই মিঠাই’। এতেই খুব কষ্ট করে সংসার চলে তাঁর। মানুষের কাছে হাত পাতার চেয়ে পরিশ্রম করে চলাই তাঁর কাছে সম্মান ও ইজ্জতের।

আশি বছরের বৃদ্ধ আব্দুর রহমান চুনারুঘাট উপজেলার ৭নং উবাহাটা ইউনিয়নের উড়ারকুল গ্রামের মৃত রুছমত উল্লাহর ছেলে। ‘হাওয়াই মিঠাই’ ছাড়াও মাঝে মাঝে তিনি কৃষি কাজ করেন বেঁচে থাকার তাগিদে।

প্রতিদিন সকালে ‘হাওয়াই মিঠাই’ এর বাক্স কাঁধে নিয়ে বের হন। বাক্সের সব মিঠাই বিক্রি হলে সদাই-পাতি করে বাড়ি ফিরেন। বিক্রি না হলে বাজার-সদাই ঠিকমতো করা হয় না।

এদিকে পণ্য-দ্রব্যের উর্ধ্বগতির কারণে আব্দুর রহমানের মতো লোকেরা থেকে শুরু করে নিম্ন মধ্যবিত্তরা হিমশিম খাচ্ছেন ঠিকমতো খেয়ে-ধেয়ে বেঁচে থাকতে।

‘হাওয়াই মিঠাই’ বিক্রেতা আব্দুর রহমান বলেন, “আমার বয়স ৮০ বছর। আমার এক ছেলে সন্তান আছে। সে টমটম চালায়। তার আয়ে সংসার চলে না। তাই এই বয়সেও গাঁও-গ্রামে ‘হাওয়াই মিঠাই’ বিক্রি করি।”

তিনি জানান, প্রতিদিন বাক্সে ৬শ পিস মিঠাই নিয়ে বের হই । যদি সবগুলো বিক্রি হয় তবে দুইশ’ থেকে আড়াইশ’ টাকা আয় হয় । বিক্রি না হলেও  সৃষ্টিকর্তার কাছে শুকরিয়া আদায় করে পরের দিনের জন্য প্রস্তুতি নেই ।

আবহমান গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্য ‘হাওয়াই মিঠাই’ নিয়ে গ্রাম-গঞ্জে ফেরিওয়ালাদের বর্তমানে খুব কমই দেখা যায়। অসহায় ও বয়স্ক আব্দুর রহমানকে সরকারি ভাতার ব্যবস্থা করে দিলে হয়তো তাঁর জীবন-যাপন অনেকটাই সহজ হবে।

Developed By The IT-Zone