ঢাকাশুক্রবার , ১৭ এপ্রিল ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুনারুঘাটে ২৮ বস্তা সরকারি চাল নিয়ে ধুম্রজাল !

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
এপ্রিল ১৭, ২০২০ ৯:১৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নাছির উদ্দিন লস্কর,চুনারুঘাটঃ    হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে সরকারি ২৮ বস্তা চাল নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টে হয়েছে। গত (বৃহস্পতিবার) চুনারুঘাটের বাল্লা রোড থেকে ২ টি টমটমে ২৮ বস্তা চাল ও দুই চালকসহ চুনারুঘাট থানার অফিসার অলক বড়ুয়া গোপন তথ্যের ভিত্তিতে আটক করেন।
আটক টমটম ড্রাইভারদের স্বীকারোক্তিতে জানা যায়,১০ নং মিরাশী ইউপির রতনপুর গ্রামের হাজী সিরাজ মিয়ার পুত্র জালাল মোল্লা ওরফে সজল মিয়ায় চাল গুলো বাল্লা রোডে নিয়ে আসতে বলেন। তারই প্রেক্ষিতে আজ (শুক্রবার) চুনারুঘাট থানা পুলিশ জালাল মোল্লা ওরফে সজল মিয়া (৩৫) কে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। চুনারুঘাট থানার মামলা নং ৮ তাং ১৭-৪-২০২০ইং ।
অন্যদিকে মামলার আসামি জালাল দৈনিক আমার হবিগঞ্জ প্রতিনিধির কাছে চোখের পানি পেলে নির্দোষ বলে দাবি করেন। তিনি বলেন,আমি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ি। মাঝে মধ্যে মসজিদে ইমামতিও করি। আামকে ফাঁসানো হয়েছে। জালাল মোল্লা আরো বলেন,একটি মহল আমাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে আমাকে ফাঁসানোর জন্য এই কাজটি করেছে। চাল মোটা হওয়া যারা কার্ডের মাধ্যমে পায় তাদের কাছ থেকে আমি এ চাল কিনে নিয়েছি।

ছবি : টমটম ভর্তি চাল নিয়ে বিপাকে ,শুরু হয়েছে ধুম্রজাল

স্থানীয় মিরাশী ইউপি চেয়ারম্যান রমিজ উদ্দিন বলেন,সরকারের বরাদ্দকৃত চাউল ইউপি সদস্য ও ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতে স্বচ্ছতা অনুযায়ী বিতরণ করি। তারপর যদি কেউ বিক্রি করে এর দায় আমাদের না।
এ বিষয়ে চুনারুঘাট থানার ওসি  শেখ নাজমুল হক দৈনিক আমার হবিগঞ্জকে বলেন. সারাদেশে করোনা পরিস্থিতিতে যারা গরীবের চাল আত্মসাৎ করবে,সে যেই হোক তাকে ছাড় দেয়া হবে না।
জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সত্যজিত রায় দাশ বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কঠোর নির্দেশনার পরও যারা সরকারের বরাদ্দকৃত খাদ্য সামগ্রী আত্মসাৎ করার চেষ্টা করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এলাকাবাসীর দাবি জনপ্রতিনিধিগণ স্বচ্ছল ব্যাক্তিদের ত্রান দিয়েছে তাই এই রকমটা হয়েছে,তাদের দাবি অনেক গরীবরা না খেয়ে জীবন-যাপন করছে তারা যদি এই চাল টা পেত তাহলে বিক্রি করা তো দূরে থাক এই চাল দিয়ে কয়েকটি জীবন বাঁচাতো ।

Developed By The IT-Zone