ঢাকাবুধবার , ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চুনারুঘাটের কাজিরখিল ব্রীজে থেমে নেই বালুখেকোদের তান্ডব

তারেক হাবিব
সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২ ৯:২১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চুনারুঘাটের কাজিররখিল ব্রীজসংলগ্ন খোয়াই নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছেই। কোনো ধরনের
নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে নদী থেকে ২০/২৫টি শ্যালো মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

এ কাজে জড়িত স্থানীয় বালু সেলিমের নেতৃত্বে একটি প্রভাবশালী মহল।অনুসন্ধানে জানা যায়, কাজীরখিল ব্রীজসংলগ্ন খোয়াই নদী থেকে দৈনিক গড়ে ৫ থেকে ৭ লাখ টাকার বালু উত্তোলণ করা হয়ে থাকে। এভাবেই মাসে প্রায় ১ কোটি টাকার বালু উত্তোলণ করা হয়।

তবে এর পুরোটাই অবৈধ। এতে করে একদিকে যেমন বাড়ছে নদীভাঙনের আশঙ্কা যেমন বাড়ছে, তেমনি নদীপাড়ে বালুর স্তুপ জমিয়ে রাখায় নষ্ট হচ্ছে ফসলি জমির উর্বরতাশক্তি।

এদিকে বালু খেকো সেলিমের বিরুদ্ধে বার বার লিখিত অভিযোগ দায়ের করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না এলাকাবাসী। স্থানীয় পর্যায়ে তার নানা অপকর্মের সত্যতা পেলেও সে কতিপয় ব্যক্তিদের ম্যানেজ করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে হাতিয়ে নিচ্ছেন কোটি কোটি টাকা।

ছবি : ট্রাকে করে বালূ নেয়া হচ্ছে

অন্যদিকে, ভোগান্তির শেষ নেই নদীর পাড় দিয়ে চলাচলকারী সাধারণ মানুষের। সরেজমিন দেখা যায়, চুনারুঘাট উপজেলার কাজিরখিল খোয়াই ব্রীজের (ভাটির পশ্চিম দিকে) ১’শ ফুটের মধ্যেই নদীতে ২০/২৫টি শ্যালো মেশিন বসিয়ে বালু তোলা হচ্ছে।

উত্তোলিত বালু পরিবহন করতে নদী পাড়ে ঢুকছে ট্রাক, ট্রাক্টর ও এক্সক্যাভেটর। এগুলো নদীতীরে নেওয়ার জন্য প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্বিচারে কাটছে যে যার মতো করে। এতে পরিবেশ বিপন্ন হচ্ছে।

এছাড়া সেতুর এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ থাকলেও সেতুর আশপাশেই বালু উত্তোলন করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত। অবৈধ এই কার্যক্রম বন্ধে স্থানীয় প্রশাসন ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বারবার জরিমানা করলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না।

সকালে জরিমানা হলেও বিকেলে আবার যেই-সেই। প্রতিদিন ট্রাক, ট্রাক্টর দিয়ে বালু নেওয়ায় পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতিসহ নদীর দুই পাড়ের প্রতিরক্ষা বাঁধ, সেতু ও বাড়িঘর হুমকির মূখে পড়েছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কিছু অসাধু কর্মকর্তা বালু ব্যবসায়ীদের সঙ্গে জড়িত রয়েছে। তাই তারাও এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন না।

এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার তাগিদ দিয়েছেন পরিবেশবাদীরা। এ ব্যাপারে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী সিদ্ধার্থ ভৌমিক জানান, অবৈধভাবে বালু উত্তোলণ ঠেকাতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসন বেশ যথেষ্ট সচেতন।

Developed By The IT-Zone