ঢাকামঙ্গলবার , ২৪ জানুয়ারি ২০২৩
আজকের সর্বশেষ সবখবর

করাঙ্গী নদীর তীর কেটে ফিশারি বানানোর ঘটনায় আদালতের স্বপ্রণোদিত মামলা দায়ের

আতাউর রহমান ইমরান
জানুয়ারি ২৪, ২০২৩ ৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের প্রেক্ষিতে হবিগঞ্জ সদর উপজেলায় করাঙ্গী নদীর তীর কেটে ফিশারি বানানোর ঘটনায় হবিগঞ্জের আদালত স্বপ্রণোদিত হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

গত সোমবার (২৩ জানুয়ারি) আমলি আদালত ১ হবিগঞ্জ সদর এর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসাইন মিস মামলা নম্বর ১/২০২৩ (হবিগঞ্জ সদর) দায়ের করেন।

এ ঘটনার বিষয়ে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) স্বয়ং সরেজমিনে তদন্তপূর্বক বিস্তারিত প্রতিবেদন মামলার ধার্য তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি এর মধ্যে আদালতে দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়।

২২ জানুয়ারি দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় ‘হবিগঞ্জে করাঙ্গী নদীর তীর কেটে ফিশারি বানানোর অভিযোগ’ শিরোনামে এ প্রতিনিধির করা সংবাদ প্রকাশিত হয়।

আদালত তার আদেশে সংবাদটি বিশ্লেষণ করেন যে, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার করাঙ্গী নদীর তীর কেটে ফিশারী করার সংবাদ ছবি সহ প্রকাশিত হয়। নদীর তীর ও পাড় দখল করে অবৈধভাবে মাটি কাটা, মাটি জমানো, নদীর মাটি বিক্রয় ও পানির স্বাভাবিক প্রবাহ চলাচলে বাধা সৃষ্টির মত গুরুতর অভিযোগ আছে।

ইতোমধ্যে কোন নিয়মিত মামলা রুজু হয়নি। এমতাবস্থায় উক্ত সংবাদ ও অভিযোগ বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০ এর ধারা ৪, ১৫ ও বাংলাদেশ পানি আইন, ২০১৩ এবং বিধিমালা, ২০১৮ এবং পেনাল কোড ১৮৬০ এর ৪৩১ ধারা এর লংঘন মর্মে প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হয়।

এমতাবস্থায় উক্ত ঘটনা জনস্বার্থে ও ন্যায় বিচারের উদ্দেশ্যে অপরাধ উদ্ঘাটন, আসামীদের চিহ্নিতকরণ, সংবাদে প্রকাশিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিস্তারিত তদন্ত এবং উল্লেখিত আইন ছাড়াও অন্য কোন আইনে অপরাধ হচ্ছে কিনা, তার বিস্তারিত তদন্ত প্রয়োজন মর্মে প্রতীয়মান হয়।

উল্লেখ্য ২২ জানুয়ারি দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয় যে, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার তেঘরিয়া ইউনিয়নের টঙ্গির ঘাট গ্রামের নিকট করাঙ্গী নদীর তীরবর্তী জমি কেটে পাড় বানিয়ে বেআইনিভাবে ফিশারি নির্মাণের কাজ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ও তেঘরিয়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি মজলিশপুর গ্রামের বাসিন্দা শিপন আহমেদ আছকির এবং ওই এলাকার সাবেক মেম্বার এলাচ মিয়ার নেতৃত্বে এ কাজ চলছে বলে জানা গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, টঙ্গীর ঘাট গ্রামের নিকট গোইল্যা কোনার বন্দে করাঙ্গী নদীর উপর নির্মিত ব্রিজের নিকট হতে পশ্চিম পাড় ধরে দক্ষিণ দিকে প্রায় আধা কিলোমিটার এলাকা জুড়ে এক্সকেভেটর দিয়ে উঁচু করে নদীর গভীর এলাকা ঘেঁষে পাড় বেঁধে দেয়া হয়েছে। এর বিপরীতে রয়েছে নদী রক্ষা বাঁধ। দুটো মিলিয়ে মাঝখানের জমি গভীর করে ফিশারি নির্মাণ কাজ চলছে।

সময় সেখানে উপস্থিত এক্সকেভেটরের ড্রাইভার জানান, এখানে কাজ করাচ্ছেন এলাচ মেম্বার ও শিপন আহমেদ আছকির। এ বিষয়ে শিপন আহমেদ আছকিরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তিনি এক্সকেভেটরটি ভাড়া নিয়ে এসেছেন। তবে এখানকার জমির মালিক তিনি নন রামনগর গ্রামের বাসিন্দা শিবলু নামে এক ব্যক্তি।

এ বিষয়ে জানতে শিবলু নামের ওই ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, জমিটি সরকারি। এখানে তিনি ধান চাষ করে আসছিলেন।

ইদানিং তিনি এলাচ মেম্বারদেরকে বর্গা চাষ করার জন্য দিয়েছেন। এলাচ মেম্বার এবং আছকির তাকে না জানিয়েই এখানে মাটি কেটে পাড় তৈরি করছেন।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আয়েশা আক্তারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিষয়টি তার জানা নেই তিনি খোঁজখবর নিয়ে ব্যবস্থা নেবেন।

Developed By The IT-Zone