ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৩১ ডিসেম্বর ২০২০

একজন আব্দুল মজিদ খান এমপি : কিছু কথা

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
ডিসেম্বর ৩১, ২০২০ ৯:২৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শিব্বির আহমদ আরজু ॥  ২০১০ খ্রি.। এর আগ থেকেই আমি বানিয়াচং ক্রিকেট ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ। বানিয়াচংয়ের প্রতিনিধি দলের সাথে আমিও গেলাম হবিগঞ্জে আব্দুল মজিদ খান এমপি মহোদয়ের কাছ থেকে ক্রিকেট সেট আনতে। এমপি মহোদয় আমাকে জিজ্ঞাসা করলেন আমি কি ক্রিকেট খেলি? তখন আগ বাড়িয়েই বানিয়াচং ক্রিকেট ক্লাবের সভাপতি মাস্টার ফজল খান উত্তর দিয়ে দেন। পরে এমপি মহোদয়ের প্রশ্রের উত্তরে আমি বলি আমি একজন পবিত্র কোরআনের হাফেজ। পরপর বানিয়াচংয়ের হয়ে হবিগঞ্জ জালাল স্টেডিয়ামে কাটের বল দিয়ে ৫ বছর ক্রিকেট খেলেছি। পাশাপাশি সাংবাদিকতা করি দৈনিক খোয়াই এবং দৈনিক বাংলা বাজার পত্রিকায়। খেলা বাদ দেওয়ার পর আমি সংগঠকের দায়িত্বে আছি।

 

ছবি : হবিগঞ্জ ২ আসনের এমপি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ থান এর ফাইল ছবি

 

একথা শোনার পর এমপি মহোদয় বেশ সন্তোষ প্রকাশ করছেন অবস্থাদৃষ্টে বুঝা গেছে। এর পর থেকে বানিয়াচং যখনি এমপি আব্দুল মজিদ খান মহোদয় এসেছেন এর অধিকাংশ সভায় আমি একজন সংবাদকর্মী হিসেবে যোগদান করার সৌভাগ্য হয়েছে। সেটা আরও নিবিড় হয়েছে সাহিত্য পত্রিকা তরঙ্গ এবং তরঙ্গ টোয়েন্টিফোর ডটকম এর সুবাদে।

 

আমি এমপি মহোদয়ের ১২ বছরে প্রায় শতাধিক সভায় উপস্থিত থেকে সংবাদ কভারেজ করেছি। আমি একটি বিষয় দেখেছি, তিনি কখনো নিরাশ হওয়ার মতো কোন বক্তব্য প্রদান করেননি। তিনি প্রতিপক্ষের সম্পর্কে কোন বিষোধাগার নয়, বরং উৎকর্ষ যুক্তি দিয়ে অত্যন্ত প্রাঞ্জল ভাষায় বক্তব্য দিয়ে থাকেন। শুধু তাই নয় তাঁর পূর্ববর্তী দলীয় এবং অন্যান্য দলের নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করে বক্তব্য প্রদান করেন তিনি। তিনি কোন স্থানে কাউকে এই দিবেন, সেই দিবেন বলে অঙ্গীকার করতে শুনিনি। যা সমস্যা তা ডায়েরীতে লিপিবদ্ধ করে রাখেন। ঠিকই সময়মতো সেসব কাজ করে দিয়েছেন।

 

বিশেষ করে শিক্ষা ক্ষেত্রে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন সাধিত করেছেন তিনি। এখন অবধি প্রায় ২০টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভূক্ত করেছেন। প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শুরু করে প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে অত্যাধুনিক দৃষ্টিনন্দন ভবন করেছেন। জনাব আলী কলেজকে সরকারিকরণ করেছেন।

 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করেছেন। যেখানে যা প্রয়োজন সেখানে রাস্তা-ঘাট,ব্রীজ, কালভার্ট করেছেন। আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সব সময় এমপি মহোদয়কে কঠোর ভূমিকায় দেখা গেছে অনেকবার।বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জে যখনি গ্রাম্য দাঙ্গা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে, তখনই তিনি কার্যত পদক্ষেপ নিয়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। এমপি আব্দুল মজিদ খান মহোদয় একজন জনপ্রিয় আইনজীবী, প্রাজ্ঞ রাজনীতিবিদ ও আইন প্রণেতা। খুব শান্ত-ভদ্র ও স্বজ্জন হিসেবে সারা দেশে সমধিক পরিচিত। তিনি কর্মীদের কাছে যেমন বটবৃক্ষের ন্যায়, তেমনি সাধারণ মানুষের কাছেও আস্থার এক মূর্ত প্রতীক। তিনি খুব সাহসী মানুষ। দক্ষ সংগঠক। চ্যালেঞ্জ নিতে ভালোবাসেন। তবে সেটা ধীরে-সুস্থে।

 

তিনি দূরের মানুষকেও কাছে আনতে পারেন। তবে কোন মোহে নয় অমিত গুণ ও চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য দিয়ে। তিনি দলের উর্ধ্বে উঠে সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন অবিরাম। ঈদ, রোজা,পূজা, জানাযা, বিয়ে-শাদী প্রভৃতি সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করে থাকেন নিয়মিত। যা এ ক্ষেত্রে বিরলই বলা যায়। বৈশ্বিক দূর্যোগ করোনাকালীন সময়ে এবং পরবর্তীতে বন্যার সময় জীবনের চরম ঝুঁকি নিয়ে এ ২ উপজেলার সাধারণ মানুষের পাশে ছিলেন তিনি। গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে অসহায় মানুষদের জন্য সহযোগিতা নিয়ে গেছেন। যা সারা দেশে প্রশংসিত হয়েছেন। তিনি সাধারণত কোন কমিটমেন্ট করেন না। কমিটমেন্ট করলে সেটা রক্ষা করেন আপন তাগিদেই।

 

তিনি যেমন উদার, তেমনি নীতির ক্ষেত্রে আপসহীন। নেই কোন লাঠিয়াল বাহিনী। চলেন সাদাসিদেভাবে। সকাল থেকে গভীর রাত অবধি স্বীয় বাসভবন থাকে নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের জন্য উন্মুক্ত। সংসদ না থাকলে তিনি সদা অবস্থান করেন হাওরাঞ্চলের গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে। সেই গুণী রাজনীতিবিদ হবিগঞ্জ-২ আসনের বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান মহোদয়ের জন্মদিন আজ (৩১ ডিসেম্বর)।

 

এ ক্ষুদ্র পরিসরে এমন একজন গুণী রাজনীতিবিদ সম্পর্কে সবকিছু লেখা সম্ভব নয়। সময় সুযোগ হলে সুবিস্তারে লেখার প্রয়াস রইলো। আজকের এই দিনে জনতার নেতা ও গুণী রাজনীতিবিদের সু-স্বাস্থ্য ও নেক হায়াত কামনা করি। আমীন

 

লেখক : সম্পাদক ও প্রকাশক, তরঙ্গ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Developed By The IT-Zone