ঢাকামঙ্গলবার , ২৮ এপ্রিল ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আসুন আমরা সচেতন হই, করোনা মোকাবেলা আমরা যেন সক্ষম হই

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
এপ্রিল ২৮, ২০২০ ৯:১৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

এম.সি. শুভ আহমেদ –   আমরা সবাই জানি বর্তমানে সাড়া বিশ্ব আতঙ্কিত। এক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে। সাড়া বিশ্ব একত্র হয়ে ও কোনো ঔষধ ভ্যকসিন আবিস্কার করতে পারেনি। আজ সাড়া বিশ্ব লকডাউন গৃহবন্দি।
বিশ্বের উন্নত দেশ গুলো ঐ আজ অসহায়। যে সকল দেশের মাথাপিচু আয় আমার দেশের থেকে কয়েক গুণ বেশি তারাই আজ বলে আমরা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলছি । যে কোনো অসম্ভব ছোট বড় ইলেকট্রিক পণ্য ও উন্নত মানের ঔষধ আবিস্কারক যে সকল দেশ তারাই আজ ব্যর্থ। যে সকল দেশের পাড়া-মহল্লা খবর নিলে কয়েকজন ডাক্তার গবেষক পাওয়া যায় তারা আজ বলে ঔষধ ভ্যকসিন আবিস্কার জন্য অনির্দিষ্ট সময় প্রয়োজন।
আমেরিকার, চীন, ইতালি, ফ্রান্স সহ বিশ্বের প্রায় দুইশত এর অধিক দেশে ছড়িয়ে গেছে করোনা ভাইরাস। ঐ সকল দেশে ঘন কবর। বাংলাদেশ ও প্রতিদিন ৪০০-৫০০ জন করে আক্রান্ত হচ্ছে। আজ মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬৪৬২ জন। দিন দিন শুধু আক্রান্তর সংখ্যা বাড়তেছে, একটি ভয়াবহ রুপ ধারণ করতেছে। আসুন আমরা সচেতন হই,করোনা মোকাবেলা সক্ষম যেন হই।
আপনি কি ভাবছেন? মুখে মাস্ক ছাড়া অযথা ঘুরাঘুরি করবেন? হাজার হাজার টাকা কত দিকে ব্যয় করেন ২০ টাকার একটি মাস্ক আপনার জিবন বদলে দিতে পারে।  আপনি কি বাজারে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে বাজার করে চলে আসবেন? আপনি সুস্থ আছেন, আপনার পাশের ব্যক্তি সুস্থ আছে কিনা এই বিষয় জানেন না, তাই আপনার সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা উচিত ।  হাচি-কাশি হতে দূরে  থাকুন। বিনা কারনে ঘর থেকে বাহির হবেন  কেন? সবকিছু বন্ধ বিনা কারণে কেন অযথা বাহির হবেন। যখন প্রয়োজন হয় তখন আপনার নিরাপত্তার সহিত বাহিরে যাবেন। করোনা ভাইরাস মোকাবেলা ঘরে থাকার বিকল্প নাই। পুলিশ যখন লাঠি নিয়ে তাড়া করবে আপনি কি তখন তাদের সাথে চুর-পুলিশ খেলবেন? তবে এটা হবে আপনার  মৃত্যুর মুখে দাঁড়িয়ে জমের সাথে খেলা। পুলিশ আপনার জীবন বাছাতে আপনাকে সাহায্য করছে।
আপনি কি ভাবছেন, আপনি যে পেশায় নিয়োজিত আপনার  পেশার কার্যকলাপ  বন্ধ, যার ফলে  আপনার অধিক ক্ষতি হচ্ছে। তাই করোনা ভাইরাসকে সাধারণ মনে করে পূর্বের পেশায় নিয়োজিত হবেন, তাহলে আপনার ধারণা সম্পুর্ন ভুল। একটু ভেবে   দেখেন, সমস্ত বিশ্ব লকডাউন বিশ্বের কত টাকা ক্ষতি হচ্ছে। একটা দেশের সব কিছু বন্ধ দেশের সরকারের কত ক্ষতি হচ্ছে।
আপনি কি ভাবছেন,এই ভাবে লকডাউন চললে খাবার  না পেয়ে মারা যাব? হয়তো আমার হয়তো আমেরিকার চীনের মতো উন্নশীল রাষ্ট্র নয়। আমাদের এইটুকু ভরসা আছে আমরা খাবার না পেয়ে মারা যাব না। বর্তমানে তো দেখতেছেন অসহায়, গরিব, দুঃখী, কর্মহীনদের মাঝে সরকারি খাদ্য বিতরণ করা হচ্ছে। এই মহামারিতে দেশের এমপি, মন্ত্রী, চেয়ারম্যান, শিল্পপতি, ধনীব্যক্তি ও সামাজিক সংগঠন গুলো এই  দেশের নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের পাশে দাড়িয়েছে ।
আসুন আমরা সবাই সচেতন হই, করোনা মোকাবেলা আমরা যেন সক্ষম হই । বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বাহির হব না। একে অপরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখি।সর্বদা মাস্ক পরিধান করি। হাচি-কাশি হতে দূরে থাকি।ঘন ঘন হাত ধুই। পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকি। নিজ নিজ ভাবে লকডাউন আইন মেনে চলি। ঘরে থেকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতা করি।

Developed By The IT-Zone