ঢাকামঙ্গলবার , ৬ জুলাই ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আজমিরীগঞ্জে স্কুল শিক্ষক ও তার স্ত্রী কর্তৃক মা ও ছোট ভাইকে নির্যাতনের অভিযোগ

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
জুলাই ৬, ২০২১ ৪:০২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আজমিরীগঞ্জ প্রতিনিধি :   হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে উপজেলা শিক্ষা অফিসে কর্মরত উপজেলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ জালোয়ার জাহান জোহাক (৩৬) এবং তার স্ত্রী ফারহানা নাসরিন ইমা ওরফে উমা (৩১) এর বিরুদ্ধে তার মা ও প্রতিবন্ধী ছোট ভাইকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে সোমবার (০৫ জুলাই) রাত সাড়ে ১১ টায় শিক্ষক জালোয়ার জাহান জোহাকের মা সেলিনা আক্তার বাদী হয়ে আজমিরীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করছেন।

জালোয়ার জাহান জোহাক আজমিরীগঞ্জ পৌরসভার আজিমনগর (লম্বাহাটী)র বাসিন্দা ও আজিমনগর মিজাজিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মৃত নাসির উদ্দীন মিয়ার পুত্র।

 

 

 

ছবি : শিক্ষক মোঃ জালোয়ার জাহান জোহাক এর ফাইল ছবি

অভিযোগ ও পারিবারিক সুত্রে জানাযায় দীর্ঘদিন ধরে সহকারি শিক্ষক জোহাক এবং তার স্ত্রী উমার অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে দীর্ঘ চার মাস ঘর ছাড়া নিজের ভাই ও স্বজনদের কাছে ছিলেন জোহাকের মা সেলিনা আক্তার (৫৫)। এমন কি প্রতিবন্ধী ছোট ভাই জুজিকেও মানসিক ও শাররিক ভাবে নির্যাতন করে জোহাক ও তার স্ত্রী উমা। কিছুদিন পূর্বে সেলিনা বেগম আত্মীয় স্বজনদের মধ্যস্ততায় আবারো ঘরে ফিরে আসেন। প্রথমে কিছুদিন ঠিকটাক চললেও কিছুদিন পর আবারো সেলিনা বেগমের উপর নেমে আসে নিয়মিত অমানুষিক নির্যাতন ।
এরই জের ধরে সোমবার (৫জুলাই) রাত ১০ টায় জোহাকের স্ত্রী উমা সেলিনা আক্তারের সাথে বাক বিতণ্ডা শুরু করে। এ সময় পাষন্ড জোহাক এসে নিজের মা সেলিনা আক্তারকে ঘাড় ধরে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। ধাক্কা খেয়ে সেলিনা আক্তার দরজায় পড়ে গিয়ে মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন। এ সময় জোহাকের শারীরিক প্রতিবন্ধী ছোট ভাই জুজি (২৬) শোরগোল শুনে ঘরে আসলে তাকেও নির্যাতন করে পাষন্ড স্কুল শিক্ষক জালোয়ার জাহান জোহাগ ও তার স্ত্রী উমা।
এ সময় শোরগোল শুনে স্হানীয়রা ঘরে প্রবেশ করে আহত সেলিনা আক্তার এবং জুজিকে উদ্ধার করে। এ বিষয়ে সেলিন আক্তার বাদী হয়ে আজমিরীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পর পুলিশ ঘঠনাস্হলে গেলে জোহাক ও তার স্ত্রী উমা সটকে পড়েন।

জোহাকের অপর এক ছোট ভাই পুলিশ কর্মকর্তা (নাম প্রকাশ না করার অনুরোধে) জানান সাত বছর আগে বাবা প্রাথমিক স্কুলে প্রধান শিক্ষক থাকার দরুন শিক্ষতার পেশায় চাকুরি হয় জোহাকের। এরপর পেনশনের টাকা সহ মাসিক পেশসন ভাতার টাকা নিজেই আত্মসাৎ করেন জোহাক। এরপর সুকৌশলে উপজেলা শিক্ষা অফিসারের মন জয় করে বিদ্যালয়ের পরিবর্তে উপজেলা শিক্ষা অফিসে কাজ করার সুযোগ পায় জোহাক। শিক্ষা অফিসে কাজ নয় যেনো আলাদ্বিনের চেরাগ পেয়ে যায় জোহাক।

শিক্ষা অফিসে কাজ করে রাতারাতি লাখোপতি বনে যান স্কুল শিক্ষক জোহাক । আলাদা তিন তলা ফাউন্ডেশনের বাড়ি, দামী বাইক,স্ত্রীর স্বর্ণালংকার, নগদ অর্থ সহ অনেক কিছু গড়ে তুলেন কবছরে। এরই দাম্ভিকতায় সে এলাকা এবং পরিবারের কাউকে তোয়াক্কা না করে স্ত্রীর কুবুদ্ধিতে মা এবং ভাইদের বাড়ি ছাড়া করে বাবার বাড়ি দখলে নিতে মরিয়া হয় জোহাক ও তার স্ত্রী উমা।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক জালোয়ার জাহান জোহাক জানান-বিষযটি সম্পুর্ণ সাজানো নাটক। আমার ভাইয়েরা আমাকে এবং স্ত্রীকে ঘর থেকে বের জন্য এটা পরিকল্পনা করে এটা করছেন।

এ বিষয়ে আজমিরীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুরুল ইসলাম জানান-সেলিনা বেগম বাদী হয়ে আজমিরীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করছেন। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Developed By The IT-Zone