ঢাকাশুক্রবার , ১০ জানুয়ারি ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আজমিরীগঞ্জে বিয়ে পাগলা সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা দায়ের

দৈনিক আমার হবিগঞ্জ
জানুয়ারি ১০, ২০২০ ৯:৩৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আজমিরীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ- আজমিরীগঞ্জে মোঃ সালাউদ্দিন মিয়া নামে এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে  একের পর এক গোপনে বিয়ে করে স্ত্রীদের বিদেশে পাঠিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে।জানা যায়,বিরাট বাঁশহাটিয়া গ্রামের মৃত দিল মাহমুদ মিয়ার পুত্র সালাউদ্দিন মিয়া(৩৫) গোপনে একের পর এক সুন্দরী গরীব ঘরের মেয়েদের বিয়ে করে কয়েকদিন সংসার করেই স্ত্রীদের মধ্যপ্রাচ্যের সৌদি আরব সহ বিভিন্ন দেশে পাঠিয়ে সুকৌশলে টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়। গ্রামের মানুষের সাথে আলাপ কালে জানায় যে – সালাউদ্দিন মিয়া প্রথমে একই উপজেলার জলসুখা গ্রামের মোঃ রফিক উল্ল্যার মেয়ে তানজিনা আক্তার কে বিয়ে করার ১ বছরের মাথায় তালাক দেন,বিগত ২০১৭ সালে ২য় বিয়ে করেন একই গ্রামের মোঃ মকবুল হোসেনের মেয়ে মোছাঃ সানু আক্তার(২০) কে,৩য় বিয়ে করেন।
বানিয়াচং উপজেলার কাগাপাশা গ্রামের সুমা আক্তার(২২) কে,৪র্থ শিউলি আক্তার নামে জনৈক মহিলা কে। সুকৌশলে একা একা বিয়ে করার পর কয়েক দিন সংসার করে নিজের আর্থিক অনটনের কথা বলে স্ত্রীদের বিদেশ পাঠিয়ে দিত। স্ত্রীরা  প্রবাসে কর্ম করে উপার্জিত অর্থ স্বামী সালাউদ্দিনের নামে পাঠাত। এভাবেই সালাউদ্দিন একের পর এক নারীদের বিদেশে পাঠায়, হঠ্যাৎ এক বছর পর সৌদি আরব থেকে তার স্ত্রী মোছাঃ সানু আক্তার দেশে আসলে সালাউদ্দিন কৌশলে বিমানবন্দর থেকে নিজ বাড়ীতে না এনে শশুর বাড়ীতে নিয়ে যায়্। এতে তার স্ত্রী সানু আক্তারের সন্দেহ সৃষ্টি হলে কিছু দিন পর কাউকে না জানিয়ে তার স্বামীর বাড়ীতে চলে আসে তখন দেখতে পায় সালাউদ্দিনের ঘরে সুমা আক্তার নামে আরেক স্ত্রী আছে।
এসময় সালাউদ্দিনের মা,ভাই মিলে বিদেশ ফেরৎ স্ত্রী সানু আক্তার কে বুঝিয়ে বাড়ীতে রাখেন,কয়েক দিন পর আবার তার স্বামী তাকে চাপ সৃষ্টি করে সৌদি আরব চলে যেতে এতে সানু আক্তার রাজী না হলে তার বাবার কাছ থেকে দুই লক্ষ টাকা এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে এবং মারধোর করতে থাকে। এক পর্যায়ে বেশি আহত হলে সানু বেগম হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়।সালাউদ্দিনেের ৪র্থ স্ত্রী শিউলি বেগম বর্তমানে সৌদি আরবে আছেন বলে জানান। এ ব্যাপারে সানু আক্তার জানায় সৌদি আরব থেকে তার স্বামীর নামে প্রায় দেড় লক্ষ টাকা পাঠায় ও সালাউদ্দিনের বোনের বিয়ের সময় তার বাবার কাছ থেকে নগদ ৮০,০০০/ টাকা দেন।  স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে স্ত্রী সানু আক্তার বাদী হয়ে হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইমুনাল আদালতে সালাউদ্দিন কে প্রধান আসামী করে মা,ভাই সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে গত-২/১/২০২০ ইং তারিখে মামলা দায়ের করেন।

Developed By The IT-Zone